নাগরিক সুবিধা বৃদ্ধিতে সরকারি যে কোন সংস্থা উপযুক্ত পরিত্যক্ত ভূমি দিলে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নিজস্ব অর্থায়নে নগরীর সৌন্দর্যবর্ধনে প্রকল্প করে দিবে বলে মন্তব্য করেছেন চট্টগ্রাম সিটি মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. রেজাউল করিম চৌধুরী।

মঙ্গলবার সকালে কাতালগঞ্জে সৌন্দর্যবর্ধন প্রকল্প উদ্বোধনের পর জামালখান মোড়ে খ্যাতিমান ব্যক্তিদের পেইন্টিং সংবলিত ডকুপেইন্ট ‘কিংবদন্তি’ উদ্বোধন কালে মেয়র বলেন, চট্টগ্রামের উন্নয়নের ক্ষেত্রে নগরপরিকল্পনায় সৌন্দর্যবর্ধনের মাধ্যমে নান্দনিক চট্টগাম গড়ার জন্য কাজ করছি।

No description available.

সরকারি যে কোন সংস্থা জনস্বার্থে তাদের উপযুক্ত পরিত্যক্ত ভূমি দিলে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নিজস্ব অর্থায়নে নগরীর সৌন্দর্যবর্ধনে কাজে লাগানো হবে। আমি চাচ্ছি পরিত্যক্ত সরকারি ভূমিগুলোতে পার্ক, খেলার মাঠ, হাটার ওয়াকওয়ে গড়ে তোলার মাধ্যমে সুস্থ বিনোদনের জনপরিসরের বিকাশ ঘটাতে।

এদিন কাতালগঞ্জ এলাকায় বৌদ্ধ মন্দির – পাঁচলাইশ মোড় রাস্তার পার্শ্ববর্তী পরিত্যক্ত নালা সম্প্রসারণ, ফুটপাত, ওয়াকওয়ে, সেকেন্ডারী ট্রান্সফার ষ্টেশন (এস.টি.এস) নির্মাণ, রোড ডিভাইডার সহ পুরো সড়কের আলোকায়ন ও সবুজায়ন প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন মেয়র রেজাউল। এরপর বাংলাদেশের ৫৬জন কিংবদন্তির হাতে আঁকা পেইন্টিং সম্বলিত ’ডকুপেইন্টের’ উদ্বোধন করেন মেয়র।

No description available.

কাউন্সিলর শৈবাল দাস সুমন জানান, নতুন প্রজন্মকে দেশের খ্যাতিমান ব্যক্তিদের সাথে পরিচিত করতে ৫৬জন ক্রীড়াবিদ, সঙ্গীত শিল্পী ও চলচ্চিত্র শিল্পীর পেইন্টিং সংযোজন করা হয়েছে এ প্রকল্পে।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন কাউন্সিলর নূর মোস্তফা টিনু, রুমকি সেনগুপ্ত, মেয়রের একান্ত সচিব আবুল হাশেম, গণপূর্ত অধিদপ্তরের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী মোঃ আবুল খায়ের, নির্বাহী প্রকৌশলী আবু ছিদ্দিক, ছাত্রলীগ নেতা জিএম তৌসিফ।