এআই দিয়ে নতুন স্বাদের পানীয় বানিয়েছে কোকা–কোলা

আজকাল বিনোদন থেকে চিকিৎসা সব ক্ষেত্রে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার (এআই) ব্যবহার বেশ আলোচিত হচ্ছে। তবে এআই যে কোমল পানীয়ের তীব্র প্রতিযোগিতার বাজারে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহৃত হতে পারে তা হয়তো কেউ ভাবেননি।

সম্প্রতি কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ব্যবহার করে নতুন ফ্লেভারের কোমল পানীয় বাজারে এনেছে কোকা–কোলা। সংস্থাটির মতে, এটি ‘ভবিষ্যৎকাল থেকে আসা সোডা’! একটি নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত রেগুলার ও জিরো সুগার দুই ভাবেই বাজারে পাওয়া যাবে এ কোমল পানীয়।

কোকা–কোলা নতুন ফ্লেভারের কোমল পানীয়ের এ সংস্করণের নাম দিয়েছে ‘ওয়াই ৩০০০’। রোমাঞ্চকর মনে হলেও এ নাম শুনলে কোমল পানীয়র বদলে টার্মিনেটরের স্কাইনেট ও ভিলেন আর্মির কথা মনে পড়ার কথা। কোকের এ সংস্করণের স্বাদ কেমন হতে পারে তা নিয়ে কোনো তথ্য অবশ্য কোকা–কোলা প্রকাশ করেনি। তবে যারা খেয়ে দেখেছেন তাঁরা এর স্বাদকে র‍াস্পবেরির রসের সঙ্গে তুলনা করেছেন।

নতুন এ ফ্লেভার তৈরির প্রক্রিয়া নিয়ে সংস্থাটি বলেছে, তারা ভোক্তাদের পছন্দের স্বাদ সম্পর্কে আগে তথ্য সংগ্রহ করেছে। ‘ভবিষ্যতের স্বাদ’ কেমন হতে পারে তা বোঝার জন্য চলমান ট্রেন্ডগুলো নিয়ে গবেষণা করেছে। পরে এ তথ্যগুলো বিশ্লেষণ করে নতুন ফ্লেভার বা স্বাদের বিবরণী তৈরির জন্য কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাকে নির্দেশনা দেওয়া হয়।

এমনকি এআইয়ের সাহায্যে এ বোতলের ডিজাইনও তৈরি করেছে কোকা–কোলা। ক্যানগুলোতে নিয়ন–বেগুনি রঙের সমন্বয়ে সমুদ্রতীরের আবহ তৈরি করা হয়েছে, যা দেখে কৃত্রিম ছবি তৈরির প্ল্যাটফর্ম ডাল–ই বা মিডজার্নির কথা মনে পড়বে। আগের ডিজাইনের বোতলগুলোতেও নতুন স্বাদের এ কোক পাওয়া যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *