ইউরোপীয় ইউনিয়নের ডেটা আইন লঙ্ঘনের অভিযোগে জনপ্রিয় ভিডিও শেয়ারিং প্ল্যাটফর্ম টিকটককে ৩৪ কোটি ৫০ লাখ ইউরো জরিমানা করা হয়েছে। বাংলাদেশি মুদ্রায় যা প্রায় ৪ হাজার ৪২ কোটি টাকারও বেশি।

আজ শুক্রবার দ্য গার্ডিয়ানের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শিশুদের গোপনীয় তথ্য নিয়ে শর্ত লঙ্ঘনের দায়ে ইউরোপে বিশাল এই জরিমানার মুখে পড়েছে চীনা প্ল্যাটফর্মটি।

প্রতিবেদনে বলা হয়, অ্যাপ ব্যবহারকারী শিশুদের তথ্য গোপন না রাখায় টিকটককে জরিমানা করে আইরিশ ডেটা প্রোটেকশন কমিশন (ডিপিসি)। এর আগে এত বিপুল পরিমাণ জরিমানার মুখে কখনোই পড়তে হয়নি সংস্থাটিকে।

অপ্রাপ্তবয়স্ক টিকটক ব্যবহারকারীদের ব্যক্তিগত তথ্য সুরক্ষিত নয় বলে দীর্ঘদিন ধরেই অভিযোগ ছিল। এমন অভিযোগের প্রেক্ষিতে ২০২১ সালের সেপ্টেম্বর মাসে টিকটকের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করে আইরিশ ডেটা প্রোটেকশন কমিশন।

তদন্তে দেখা যায়, অ্যাপে যে ডিফল্ট সেটিং রাখা হয়েছে তাতে ১৩ থেকে ১৭ বছর বয়সী টিকটক ব্যবহারকারীদের সঙ্গে খুব সহজেই যোগাযোগ করা সম্ভব হচ্ছে। যে কেউ সংশ্লিষ্ট অ্যাকাউন্টে ঢুঁ মেরে যোগাযোগের জন্য প্রয়োজনীয় ফোন নম্বর-সহ যাবতীয় তথ্য পেয়ে যাচ্ছেন।

তদন্তে আরও উঠে এসেছে, টিকটকে ব্যবহারকারীদের ব্যক্তিগত সুরক্ষা বলে কিছু নেই। এমনকি অ্যাপ ব্যবহারকারীদের গোপনীয় তথ্য চীনা প্রতিষ্ঠানগুলোকে সরবরাহের মতো গুরুতর প্রমাণও পেয়েছেন তদন্তকারীরা। পুরো ইউরোপজুড়ে প্রায় সাড়ে ১৩ কোটি মানুষ টিকটক অ্যাপ ব্যবহার করেন। বিপুল এই জনগোষ্ঠীর ব্যক্তিগত তথ্য সুরক্ষিত নয় বলে প্রমাণ হওয়ার পরই টিকটককে বিশাল জরিমানার সিদ্ধান্ত হয়।