ডলার শক্তিশালী, তবু বাড়লো স্বর্ণের দাম

যুক্তরাষ্ট্রের মুদ্রা ডলার শক্তিশালী হয়েছে। সেই সঙ্গে দেশটির বন্ড ইল্ড ঊর্ধ্বমুখী হয়েছে। স্বাভাবিকভাবেই স্বর্ণের দাম কমার কথা। কিন্তু উল্টো নিরাপদ আশ্রয় ধাতুটির দর বেড়েছে। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের বরাত দিয়ে সিএনবিসির এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য পাওয়া গেছে।

এতে বলা হয়, শিগগিরিই বৈশ্বিক অর্থনীতি মন্দার মধ্যে পড়তে পারে। ফলে সুদের হার বাড়িয়ে যাওয়ার আভাস দিয়েছে বিশ্বের অধিকাংশ কেন্দ্রীয় ব্যাংক। পরিপ্রেক্ষিতে সতর্ক অবস্থানে রয়েছেন বিনিয়োগকারীরা। তাতে স্বর্ণের মূল্য বৃদ্ধি পেয়েছে।

শুক্রবার (২২ সেপ্টেম্বর) স্পট মার্কেটে বৈশ্বিক বেঞ্চমার্ক স্বর্ণের দাম ঊর্ধ্বমুখী হয়েছে শূন্য দশমিক ৩ শতাংশ। প্রতি আউন্সের দর স্থির হয়েছে ১৯২৪ ডলার ৭০ সেন্টে।

তবে আগের কার্যদিবসের শুরুতে বেঞ্চমার্কটির মূল্য ব্যাপক নিম্নমুখী হয়। দৈনিক ভিত্তিতে গত ৫ সেপ্টেম্বরের পর যা সর্বাধিক পতন।

আলোচ্য কর্মদিবসে ফিউচার মার্কেটে যুক্তরাষ্ট্রের বেঞ্চমার্ক স্বর্ণের দাম বেড়েছে শূন্য দশমিক ৩ শতাংশ। আউন্সপ্রতি দর নিষ্পত্তি হয়েছে ১৯৪৫ ডলার ৩০ সেন্টে।

গত ২ বছর ধরে সুদের হার বাড়িয়ে আসছে বিশ্বের সর্ববৃহৎ কেন্দ্রীয় ব্যাংকগুলো। ইতোমধ্যে সর্বোচ্চ সুদহার বাড়িয়েছে তারা।

আগামীতেও মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে সেটা অব্যাহত রাখার ইঙ্গিত দিয়েছেন ব্যাংকগুলোর সংশ্লিষ্টরা। কারণ, সামনে বিশ্বজুড়ে অর্থনীতি বাজে অবস্থার মধ্য দিয়ে যেতে পারে।

বিখ্যাত আর্থিক প্রতিষ্ঠান টেস্টিলাইভের বৈশ্বিক সামষ্টিক অর্থনীতির প্রধান ইলিয়া স্পিভাক বলেন, বিশ্বব্যাপী প্রবৃদ্ধি থমকে যাওয়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে। ফলে স্বর্ণের দাম ঊর্ধ্বগামী হয়েছে। সাধারণত, অর্থনৈতিক সংকটে মূল্যবান ধাতুটির কদর বেড়ে যায়।

ইতোমধ্যে ডলার সূচক গত ৬ মাসের মধ্যে সর্বোচ্চে উঠেছে। এছাড়া ১০ বছর মেয়াদি ট্রেজারি ইল্ড বিগত ১৬ বছরের মধ্যে সর্বাধিক স্তরে পৌঁছেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *