ওয়ালটন হেড কোয়ার্টার্স পরিদর্শনে ফরেন সার্ভিস একাডেমির প্রতিনিধিদল

দেশের শীর্ষ ইলেকট্রনিক্সক ও টেকনোলজি পণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ওয়ালটনের হেড কোয়ার্টার্স পরিদর্শন করেছে বাংলাদেশ ফরেন সার্ভিস একাডেমির তত্ত্বাবধানে ১৩ দেশের ৩২ সদস্যের প্রতিনিধিদল।

উদ্দেশ্য, ওয়ালটনের আন্তর্জাতিক মানসম্পন্ন অত্যাধুনিক প্রযুক্তির বিভিন্ন পণ্যের উৎপাদন কার্যক্রম সরেজমিনে দেখা। এর মাধ্যমে ইলেকট্রিক্যাল, ইলেকট্রনিক্স ও হাই-টেক পণ্য উৎপাদনে বাংলাদেশের অভূতপূর্ব উন্নয়ন ও রপ্তানি কার্যক্রম সম্পর্কে সম্যক ধারণা ও অভিজ্ঞতা লাভ করেন তারা।

মঙ্গলবার (১৪ নভেম্বর) সকালে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা ও ফরেন সার্ভিস অ্যাকাডেমির রেক্টর মাশফি বিনতে শামসের নেতৃত্বে ৩২ সদস্যের প্রতিনিধিদল গাজীপুরের চন্দ্রায় ওয়ালটন হেড কোয়ার্টার্সে আসেন। প্রতিনিধিদলের মধ্যে ছিলেন আফ্রিকা এবং মধ্যপ্রাচ্যবিষয়ক অতিরিক্ত সচিব তারিকুল ইসলাম, মহাপরিচালক শাহ আহদেম শফি, মহাপরিচালক (আরও) রাইস হাসান সারওয়ার, সহকারী সচিব আকলিমা খানম।

প্রতিনিধিদলে আরও ছিলেন, ইরাক, কেনিয়া, মালদ্বীপ, নাইজেরিয়া, গাম্বিয়া, ব্রুনেই দারুসসালাম, কম্বোডিয়া, মালয়েশিয়া, মিয়ানমার, ইন্দোনেশিয়া, লাওস, সিঙ্গাপুর, থাইল্যান্ডসহ ১৩ দেশের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ট্রেইনি অফিসার, কূটনীতিক ও অন্যান্য উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তারা ।

ওয়ালটন হেড কোয়ার্টার্সে প্রোডাক্ট ডিসপ্লে সেন্টারে বাংলাদেশ ফরেন সার্ভিস একাডেমির প্রতিনিধিদল

অতিথিরা ওয়ালটন হেড কোয়ার্টার্সে পৌঁছালে তাদের ফুল দিয়ে স্বাগত জানান ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ পিএলসি’র অ্যাডিশনাল ম্যানেজিং ডিরেক্টর মেজর জেনারেল (অব.) ইবনে ফজল শায়েখুজ্জামান।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, ওয়ালটনের ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর ইউসুফ আলী, সিনিয়র এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর এস এম জাহিদ হাসান, অ্যাডমিন ইয়াসির আল-ইমরানসহ ওয়ালটন হেড কোয়ার্টার্সের উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তারা।

ওয়ালটন হেড কোয়ার্টার্সে কম্প্রেসার ম্যানুফ্যাকচারিং প্ল্যান্টে বাংলাদেশ ফরেন সার্ভিস একাডেমির প্রতিনিধিদল

হেড কোয়ার্টার্সে অতিথিরা প্রথমে ওয়ালটনের বিভিন্ন পণ্যের উৎপাদন প্রক্রিয়ার ওপর নির্মিত ভিডিও ডক্যুমেন্টারি উপভোগ করেন। এর পর তারা ওয়ালটনের সুসজ্জিত প্রোডাক্ট ডিসপ্লে সেন্টারসহ সর্বাধুনিক প্রযুক্তির রেফ্রিজটারেটর, টেলিভিশন এবং মোল্ড অ্যান্ড ডাই ইত্যাদি পণ্যের প্রোডাকশন প্ল্যান্টস সরেজমিনে পরিদর্শন করেন। তারা ইলেকট্রিক্যাল, ইলেকট্রনিক্স ও হাই-টেক পণ্য উৎপাদনে বাংলাদেশের অভূতপূর্ব উন্নয়ন ও রপ্তানি কার্যক্রম সম্পর্কে সম্যক ধারণা ও অভিজ্ঞতা লাভ করে মুগ্ধতা প্রকাশ করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *