বাংলাদেশ প্রকৃত অর্থেই এখন ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ’ এ রূপান্তরিত হচ্ছে। আর তাই কর দেওয়ার জন্য একটি ট্যাক্স-ফাইলিং অ্যাপ অত্যাবশ্যকীয় হয়ে উঠেছে।

একটি ডিজিটাল ট্যাক্স-ফাইলিং অ্যাপ করদাতাদের সহজ সমাধানে যেমন সাহায্য করবে তেমনি বাংলাদেশকে প্রযুক্তিগতভাবে আরও অগ্রসর এবং উন্নত করে তুলবে। শাপলা ট্যাক্স ইতোমধ্যেই অনলাইনে কর দেওয়ার একটি ভরসার জায়গা হয়ে উঠেছে।

বুধবার (১৮ অক্টোবর) ঢাকায় প্রতিষ্ঠানটির প্রধান কার্যালয়ে ‘শাপলা ট্যাক্স অ্যাপ’ এর উদ্বোধন করা হয়। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে গণমাধ্যমকর্মীসহ গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

ট্যাক্স অ্যাপ চালু করলো শাপলা ট্যাক্স

অ্যাপটির কর্মপরিকল্পনা ও দেশের কর ব্যবস্থাপনায় এর ভূমিকা নিয়ে তারা এ সময় নিজেদের মতামত তুলে ধরেছেন। এক হাজার জনেরও বেশি গ্রাহক গতবছর শাপলা ট্যাক্সের মাধ্যমে কর দিয়েছিল। যা তাদের অসাধারণ সাফল্যেরই প্রমাণ।

প্রতিষ্ঠানটির আরেকটি উল্লেখযোগ্য দিক হলো, তাদের ফ্রি ট্যাক্স ক্যালকুলেটর। এটি তাৎক্ষণিক কর দেওয়ার হিসাব দিতে পারে এবং গ্রাহকের কর দেওয়ার প্রক্রিয়াটি সহজ করে তোলে।

এ অ্যাপ তিনটি সহজ ধাপে ট্যাক্স ফাইলিং এর কাজ করবে, যা ব্যবহারকারীকে সর্বোচ্চ ডেটা সুরক্ষার নিশ্চয়তা দেবে। অ্যাপটির অন্যতম বিশেষত্ব হলো, এটি আইটিপির সার্টিফিকেটপ্রাপ্ত পেশাদারদের সঙ্গে সরাসরি সম্পৃক্ততার মাধ্যমে কাজ করবে এবং প্রতিটি ধাপে বিশেষজ্ঞদের নির্দেশনা ও পরামর্শে পরিচালিত হবে।

এটি অডিটিং স্ট্যান্ডার্ডস বোর্ড অব দ্য আমেরিকান ইনস্টিটিউট (এআইসিপিএ) এবং গুগল ক্লাউডের সঙ্গে একত্রিত হয়ে আন্তর্জাতিক মান অক্ষুণ্ন রাখবে, সেই সঙ্গে গ্রাহকের নিরাপত্তা প্রোফাইলকে আরও শক্তিশালী করবে। তাই বলা যায়, শাপলা ট্যাক্স অ্যাপ ডিজিটাল কর দেওয়ার এক নতুন মানদণ্ড হিসেবে আমাদের সামনে এসেছে।

টিআরপি হিসেবে শাপলা ট্যাক্স আইটিপি ও করদাতাদের মধ্যে একটি সেতুবন্ধনের মতো কাজ করে যাচ্ছে। প্রতিষ্ঠানটি সার্টিফাইড আয়কর অনুশীলনকারী সঙ্গে একত্রে কাজ করবে এবং দক্ষতার সঙ্গে কর গণনা করার পাশাপাশি আয়কর দেওয়ার জন্য সব ট্যাক্স সার্ভিস নিশ্চিত করবে। তাদের এ উদ্যোগটি কেবল ব্যক্তিগত কর কিংবা আইটিপির জন্য কর দিতেই উৎসাহিত করবে না বরং সবার কর দিতে নিশ্চিত করার যে লক্ষ্য বাংলাদেশ সরকারের রয়েছে তাও ত্বরান্বিত করবে।

‘অ্যাপটি বাজারে আনতে পেরে আমরা খুবই আনন্দিত। আমাদের এ অ্যাপ কর ব্যবস্থাপনার প্রক্রিয়াকে সবার জন্য সহজ করবে। স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ার যে লক্ষ্য রয়েছে বাংলাদেশ সরকারের, এ অ্যাপের মাধ্যমে তা নিশ্চিত হবে।

শাপলা ট্যাক্সের প্রতিষ্ঠাতা ও সিইও তাসনিম মোর্তোজা ।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অ্যাপটির সার্বিক ডিজাইন এবং ট্যাক্স ফাইলিং এ এর দক্ষতার নানাদিক সম্পর্কে আলোকপাত করা হয়। শাপলা ট্যাক্স অ্যাপের মাধ্যমে ঝামেলামুক্ত ট্যাক্স ফাইলিং এবং সুরক্ষিত ডেটা ম্যানেজমেন্ট নিশ্চিত করার অঙ্গীকারসহ অ্যাপটি সম্পর্কে খুঁটিনাটি বিভিন্ন দিক গণমাধ্যমের সামনে তুলে ধরা হয়।

শাপলা ট্যাক্স এর www.shapla.io, ব্যক্তিগত ও ব্যবসায়ীদের দক্ষতার সঙ্গে দেওয়া নিশ্চিত করার লক্ষ্যে প্রতিনিয়ত নতুন নতুন আইডিয়া নিয়ে কাজ করে চলেছে। এ প্রতিষ্ঠানটি বর্তমানে অনলাইনে কর দিতে প্রথম সারির একটি মাধ্যম হিসেবে পরিচিতি পেয়েছে। ব্যবসায়ী ও ব্যক্তি নির্বিশেষে গ্রাহকের সুবিধা অনুযায়ী কাজ করার প্রত্যয় এবং নিত্য নতুন উদ্ভাবনী সেবার মাধ্যমে শাপলা ট্যাক্স দেশের কর ব্যবস্থাপনাকে আমাদের সামনে নতুন করে পরিচয় করিয়েছে।