ডিএসই ও আইসিএবি’র মধ্যে সমঝোতা

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ লিমিটেড (ডিএসই) এবং দি ইনস্টিটিউট অফ চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্টস অব বাংলাদেশ (আইসিএবি) এর মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) স্বাক্ষরিত হয়েছে।

মঙ্গলবার ( ১৭ অক্টোবর) ঢাকায় নিকুঞ্জ-২ এ অবস্থিত ডিএসই টাওয়ারে এই সমঝোতা স্বাক্ষরিত হয়।

ডিএসই’র প্রধান নিয়ন্ত্রক কর্মকর্তা (সিআরও) খাইরুল বাশার আবু তাহের মোহাম্মদ এবং আইসিএবি’র প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) শুভাশীষ বসু নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে সমঝোতা স্মারকে স্বাক্ষর করেন।

এই সমঝোতা স্মারকের অধীনে ডিএসই বিভিন্ন তালিকাভুক্ত কোম্পানি এবং তালিকাভুক্তির জন্য আবেদন করা কোম্পানির নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদনের সত্যতা যাচাই করার জন্য ডকুমেন্টস ভেরিফিকেশন সিস্টেম (ডিভিএস) ব্যবহার করার সুযোগ পাবে।

অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন ডিএসই’র সহকারি মহাব্যবস্থাপক (এজিএম) এবং কর্পোরেট গভর্ন্যান্স অ্যান্ড ফাইন্যান্সিয়াল রিপোর্টিং কমপ্লায়েন্স ডিপার্টমেন্টের প্রধান মোঃ মাসুদ খান।

অনুষ্ঠানে ডিএসই’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. এটিএম তারিকুজ্জামান বলেন, গর্ভন্যান্স বা সুশাসনের অন্যতম উপাদান হলো সঠিক ও নির্ভরযোগ্য আর্থিক প্রতিবেদন। যে কোন স্টেকহোল্ডারদের সিদ্ধান্ত গ্রহণের জন্য আর্থিক প্রতিবেদন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। আমরা সবাই এই বিষয়ে স্বচ্ছতা নিশ্চিত করার চেষ্টা করছি। এখানে আইসিএবি এর বড় রকমের ভূমিকা রয়েছে।

তিনি বলেন, আইসিএবি হলো পেশাদার চার্টার্ড একাউন্টেন্টদের প্রাইমারী রেগুলেটর। তারা রেগুলেট করছে তাদের মেম্বার প্রতিষ্ঠানগুলোকে। আজকে আইসিএবির তৈরী ডকুমেন্ট ভেরিফিকেশন সিস্টেম আমাদের সাথে শেয়ার করার যে এমওইউ স্বাক্ষরিত হয়েছে তা তাদের সহযোগিতার আন্তরিক বহিঃপ্রকাশ।

ডিভিএস অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি সফটওয়্যার। এটি রেগুলেটরদের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ তথ্য সরবরাহ করে। আশা করি ভবিষ্যতে বিনিয়োগকারীগন এর মাধ্যমে আর্থিক প্রতিবেদনসমূহ যাচাই করার সুযোগ পাবে।

ডিএসই’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. এটিএম তারিকুজ্জামান।

আইসিএবি’র প্রেসিডেন্ট মোঃ মনিরুজ্জামান বলেন, অডিট রিপোর্টের উপর আস্থা বৃদ্ধি করার জন্য ডকুমেন্ট ভেরিফিকেশন সিস্টেম (ডিভিএস) সফটওয়্যার চালু করা হয়েছে। আইসিএবি’র নিবন্ধিত সকল অডিটরদের এই সফটওয়্যার ব্যবহার বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। আমরা অনেক বাধা-বিপত্তি দূর করে এটি চালু করতে পেরেছি। আর্থিক স্বচ্ছতা ও প্রাতিষ্ঠানিক সুশাসন অর্জন করতে হলে আমাদের সবাইকে একসাথে কাজ করতে হবে। আজকের এই সমঝোতা স্মারকের মাধ্যমে ডিএসই ও আইসিএবি’র মধ্যে একটি সুন্দর সেতুবন্ধন তৈরী হলো। আর্থিক খাতের সুশাসনের জন্য ভবিষ্যতে আমরা একসাথে কাজ করবো।

আইসিএবি বিভিন্ন কোম্পানির নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদনের সত্যতা যাচাইয়ের জন্য ডকুমেন্ট ভেরিফিকেশন সিস্টেম (ডিভিএস) তৈরি করেছে। ডিভিএস অ্যাকাউন্টিং সিস্টেমকে আরও গ্রহণযোগ্য এবং নির্ভরযোগ্য করে তুলবে। ২০২০ সালের ১ ডিসেম্বর থেকে ডিভিএস সফ্টওয়্যারের মাধ্যমে বেইজড ভেরিফিকেশন সিস্টেম চালু করেছে আইসিএবি। এর মাধ্যমে একাধিক আর্থিক বিবৃতি তৈরির অসদাচরণ রোধ এবং বিভিন্ন কোম্পানির আর্থিক প্রতিবেদনের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহি প্রতিষ্ঠা করা যায়।

ডিভিএস ইতোমধ্যে ব্যবসায়ী সম্প্রদায় এবং অন্যান্য নিয়ন্ত্রক সংস্থাগুলোর কাছে বেশ গ্রহণযোগ্য হয়ে উঠেছে। বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি), ফিন্যান্সিয়াল রিপোর্টিং কাউন্সিল (এফআরসি), ন্যাশনাল বোর্ড অব রেভিনিউ (এনবিআর) এবং জয়েন্ট স্টক কোম্পানিজ অ্যান্ড ফার্মসের রেজিস্ট্রার (আরজেএসসি) এর সাথে আইসিএবি একই ধরনের সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করেছে।

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন আইসিএবি’র কাউন্সিল সদস্য ও আহবায়ক-ডিভিএস টাস্ক ফোর্স মোহাম্মদ ফোরকান উদ্দিন এবং প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) শুভাশীষ বসু৷

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *