বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ বিদ্যুৎ বিতরণ সংস্থা বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড বা বিআরইবি-এর সঙ্গে বিল পরিশোধ সংক্রান্ত চুক্তি করেছে বাংলাদেশের শীর্ষস্থানীয় মোবাইল আর্থিক সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান নগদ। এই চুক্তির ফলে এখন থেকে নগদ গ্রাহকেরা নগদ অ্যাপের মাধ্যমে পল্লী সমিতির পোস্টপেইড বিদ্যুৎ বিল প্রদান করতে পারবেন।

ঢাকার একটি পাঁচ তারকা হোটেলে গতকাল বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড এবং নগদ লিমিটেড-এর মধ্যে এই চুক্তি সম্পাদিত হয়। চুক্তি সাক্ষর অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান মোহাং সেলিম উদ্দিন, বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের সদস্য (অর্থ) দীপংকর বিশ্বাস, ডাক অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (অতিরিক্ত দায়িত্ব) তরুন কান্তি সিকদার এবং নগদ লিমিটেড-এর প্রতিষ্ঠাতা ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক তানভীর এ মিশুকসহ দুই প্রতিষ্ঠানের শীর্ষ কর্মকর্তাবৃন্দ।

দুই প্রতিষ্ঠানের পক্ষে এই চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের সচিব হাসিনা বেগম এবং নগদ লিমিটেডের নির্বাহী পরিচালক মো. সাফায়েত আলম।

চুক্তিস্বাক্ষর অনুষ্ঠানে বক্তারা আশা প্রকাশ করেন, বাংলাদেশ ডাক বিভাগের সেবা নগদের মাধ্যমে পল্লী বিদ্যুতের বিল প্রদানের এই সুযোগ দেশের প্রান্তিক মানুষের ডিজিটাল লেনদেন নিশ্চিত করবে। এর ফলে সাধারণ মানুষের বিল প্রদানের ক্ষেত্রে ভোগান্তি অনেক কমে আসবে।

দেশের শীর্ষ মোবাইল আর্থিক সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান হিসেবে নগদ সাধারণ মানুষের নিত্যদিনের অনেক প্রয়োজন মেটাচ্ছে। নগদই দেশে প্রথম এমএফএস হিসেবে বিনা চার্জে বিল প্রদানের সুবিধা নিয়ে আসে। যা অনুসরণ করতে পরে প্রায় সব প্রতিষ্ঠান বাধ্য হয়। সেই ধারাবাহিকতায় এবার পল্লী বিদ্যুতের গ্রাহকদের জন্য এই সেবা নিয়ে এলো নগদ।

প্রত্যেক গ্রাহক অ্যাপের মাধ্যমে এই সুবিধা নিতে পারবেন। সে জন্য অ্যাপে ‘বিল পে’ ট্যাবে গিয়ে ‘ইলেকট্রিসিটি’ অপশনটি নির্বাচন করতে হবে। এরপর ‘আরইবি পোস্ট পেইড’ নির্বাচন করে বিল প্রদান করা যাবে। এই ব্যবস্থায় বিল প্রদান করলে প্রথম চারটি বিলের জন্য গ্রাহককে কোনো চার্জ দিতে হবে না।

নগদ

আপাতত পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের ১৮টি পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির (পবিস) পোস্টপেইড বিল প্রদান করা যাবে নগদ অ্যাপ ব্যবহার করে। সমিতিগুলো হলো: গাজীপুর পবিস-১, ঢাকা পবিস-১, ঢাকা পবিস-৩, ঢাকা পবিস-৪, সিলেট পবিস-১, সিলেট পবিস-২, টাঙ্গাইল পবিস, ময়মনসিংহ পবিস-১, বরিশাল পবিস-২, ঝিনাইদহ পবিস, ফরিদপুর পবিস, ব্রাহ্মণবাড়িয়া পবিস, কক্সবাজার পবিস, নারায়ণগঞ্জ পবিস-১, ভোলা পবিস, সুনামগঞ্জ পবিস, যশোর পবিস-১ এবং রাজশাহী পবিস। খুব দ্রুতই বাকি সবগুলো সমিতি এই সেবার আওতায় আসবে বলে জানিয়েছে নগদ।

নগদের সাথে এই চুক্তি সাক্ষর করার পর পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান মোহাং সেলিম উদ্দিন বলেন, ‘বাংলাদেশের আশি ভাগ বিদ্যুৎ গ্রাহক আছেন আমাদের আরইবির অধীনে। আর দেশের ৮ কোটি গ্রাহক আছেন নগদে। দেশের সর্ববৃহৎ এই দুটি গ্রাহকবান্ধব প্রতিষ্ঠান একসাথে পথ চললে তা একটি নতুন দিগন্ত উন্মোচন করবে বলে আমার বিশ্বাস। আমি আশা করি, অতিদ্রুত সবগুলো পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি নগদের এই সেবার আওতায় আসবে।’

বাংলাদেশ ডাক অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (অতিরিক্ত দায়িত্ব) তরুন কান্তি সিকদার অনুষ্ঠানে বলেন, ‘বাংলাদেশ ডাক বিভাগ দিনকে দিন আরও ডিজিটাল হয়ে উঠছে। তারই একটি নজির নগদ। নগদ তার উদ্ভাবনী শক্তি দিয়ে বাজারে বিপ্লব এনেছে, মনোপলি ভেঙে দিয়েছে। আজকের এই চুক্তির ফলে নগদ প্রান্তিক মানুষকে আরও বেশি সেবার আওতায় আনতে পারবে।’

সবশেষে এই জাকজমকপূর্ণ অনুষ্ঠানের আয়োজক এবং নতুন এই সেবা নিয়ে আসা প্রতিষ্ঠান নগদের ব্যবস্থাপনা পরিচালক তানভীর এ মিশুক বলেন, ‘বাংলাদেশের ডিজিটাল রূপান্তর সম্ভব হয়েছে পল্লী বিদ্যুত দেশের প্রান্তে প্রান্তে বিদ্যুৎ পৌঁছে দেওয়ার ফলে। নগদও সেই ডিজিটাল রূপান্তর নিয়ে কাজ করছে। আমরা চাই প্রান্তিক জনগোষ্ঠীকে নিয়ে কাজ করা দুটি প্রতিষ্ঠান হাতে হাত রেখে এগিয়ে যাক।’