বাংলাদেশ পোশাক প্রস্তুতকারক ও রফতানিকারক সমিতি (বিজিএমইএ) চলমান বৈশ্বিক অর্থনৈতিক সংকট চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় তৈরি পোশাক শিল্পে সহযোগিতা সম্প্রসারিত করার জন্য জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) প্রতি অনুরোধ জানিয়েছে।

মঙ্গলবার (১০ অক্টোবর) এনবিআরের সদস্য (কর) মো. নাজমুল করিমের সঙ্গে এক বৈঠকে বিজিএমইএ সভাপতি ফারুক হাসান এ অনুরোধ জানান।

বৈঠকে বাংলাদেশের পোশাক রফতানির ওপর বৈশ্বিক বাণিজ্য পরিস্থিতির উল্লেখযোগ্য প্রভাবসমূহ এবং পোশাক খাতে বিদ্যমান প্রতিবন্ধকতাগুলো মোকাবেলা করে শিল্প পরিচালনা করার সম্ভাব্য কৌশলগুলো নিয়ে আলোচনা করা হয়।

পোশাক রফতানিকারকরা শুল্ক, ভ্যাট ও আয়কর সংক্রান্ত যে সকল সমস্যা মোকাবেলা ও চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন হচ্ছে সেগুলো নিয়ে আলোচনা হয়।

বিজিএমইএ সভাপতি ফারুক হাসান বলেন, রাশিয়া ইউক্রেন যুদ্ধ এবং উচ্চ মূল্যস্ফীতির কারণে চলমান বৈশ্বিক অর্থনৈতিক অস্থিরতার কারণে বর্তমানে বাংলাদেশের পোশাক শিল্প একটি কঠিন সময়ের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে।

বিশ্বব্যাপী অর্থনৈতিক মন্দার ফলে পোশাকের ওপর ভোক্তারা ব্যয় হ্রাস করেছেন, ফলে পোশাকের অর্ডার কমেছে এবং রফতানি হ্রাস পেয়েছে। উপরন্তু, ফ্যাশন শিল্পে পণ্য সরবরাহের জন্য সম্ভাব্য স্বল্পতম লিডটাইমের চাহিদা ক্রমবর্ধমানভাবে বেড়েছে।

বিজিএমইএ সভাপতি ফারুক হাসান

এ সকল চ্যালেঞ্জিং পরিস্থিতিতে বিশ্ববাজারে পোশাক শিল্পের প্রতিযোগী সক্ষমতা ধরে রাখতে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডে দ্রুত ও ঝামেলামুক্ত পরিষেবাগুলোর প্রয়োজনীয়তার ওপর জোর দেন ফারুক হাসান।

বিজিএমইএ সভাপতি বলেন, জাহাজীকরণে বিলম্ব হলে অতিরিক্ত খরচ বহন করতে হতে পারে, যা শেষ পর্যন্ত শিল্পের প্রতিযোগী সক্ষমতাকে প্রভাবিত করবে। বৈশ্বিক অর্থনৈতিক সংকট ইতোমধ্যে বাংলাদেশের অর্থনীতি ও বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভের ওপর যথেষ্ট চাপ সৃষ্টি করেছে।

বৈঠকে আরো উপস্থিত ছিলেন এফবিসিসিআইয়ের সহ-সভাপতি এবং বিজিএমইএর সাবেক পরিচালক মুনির হোসেন।