মূল্যস্ফীতি বেড়েছে দেশে

বিদায়ী অক্টোবরে সার্বিক মূল্যস্ফীতি সামান্য বেড়েছে। গত মাসে তা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৯ দশমিক ৯৩ শতাংশে। আগের মাসে (সেপ্টেম্বরে) যা ছিল ৯ দশমিক ৮৩ শতাংশ।

সোমবার (৬ নভেম্বর) রাতে বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) হালনাগাদ প্রতিবেদনে এসব তথ্য পাওয়া গেছে।

এতে বলা হয়, গত মে’তে সার্বিক মূল্যস্ফীতি ছিল ৯ দশমিক ৯৪ শতাংশ। বিগত ১১ বছর ২ মাসের মধ্যে তা সর্বোচ্চ স্তরে উঠেছিল।

ডলারের বিপরীতে পাকিস্তানি রুপির ব্যাপক পতন

অবশেষে বিশ্ববাজারে স্বর্ণের দরপতন

এরপর একটু একটু করে কমছিল। তবে মাস দুয়েক আগে থেকে তা আবার বাড়ছে। অবশেষে সার্বিক মূল্যস্ফীতি ৯ দশমিক ৯৩ শতাংশে পৌঁছেছে।

অর্থাৎ ২০২২ সালের অক্টোবরে যে পণ্য ১০০ টাকায় কেনা যেতো। চলতি বছরের একই মাসে সেটা কিনতে ১০৯ টাকা ৯৩ পয়সা খরচ করতে হচ্ছে মানুষকে।

এর মানে হলো ১ বছরের ব্যবধানে ব্যয় বৃদ্ধি পেয়েছে ৯ টাকা ৯৩ পয়সা। মূল্যস্ফীতিও হলো একধরনের করের মতো। দেশের সব শ্রেণি-পেশার মানুষের ওপর যা বর্তায়।

সয়াবিনের দাম আরও বাড়লো

ডলারের বিপরীতে টাকার মান আরও কমলো

বিবিএস জানায়, অক্টোবরের খাদ্যে মূল্যস্ফীতি হয়েছে ৯ দশমিক ৫৬ শতাংশ। আর খাদ্যবহির্ভূত হয়েছে ৮ দশমিক ৩০ শতাংশ। গ্রামে সার্বিক মূল্যস্ফীতি প্রায় ১০ (৯ দশমিক ৯৯ শতাংশ)। আর শহরে এই হার ৯ দশমিক ৭২ শতাংশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *